—  ডিস্গাস্টিপেটিং!
—  কী হোলো ঘোসবাবু? এক্সাইটেড কেনো?
—  ইন্সালটিহেটিং!
—  অরে কেয়া হুয়া তো বতাইয়ে।
—  অামি মানহানির মামলা করবো।
—  সেকি! অাপকা মানহানি হুয়া হ্যায়? কৌন কিয়া হ্যায়, বতাইয়ে, দেখ লেঙ্গে উসকো।
—  অারে না না অামার হতে যাবে কেন, সমগ্র ভারতবর্ষের হয়েছে।
—  হোল ইন্ডিয়ার?! ক্যায়সে?
—  বলে কিনা তথাকথিত!
—  তোথা…কেয়া?
—  তথাকথিত। সো-কল্ড।
—  সো-কল্ড কেয়া?
—  সিঙ্গার।
—  সিঙ্গার? হামার বাড়িতে এক সিঙ্গার সিলাই মাশিন ছিলো, বহুত পুরানো। অাপ দেখে থাকবেন। বহুত বড়িয়া সিলাই মাশিন।
—  অারে দূর মশাই সেলাই মেশিন নয়, গায়ক গায়ক। সিঙ্গার।
—  অচ্ছা, উও ওয়ালা সিঙ্গার। সমঝা। তো কৌন সিঙ্গার, অরিজিত সিং?
—  অরিজি…উফফ, না রে বাবা, রিয়েল সিঙ্গার, দি নাইটিঙ্গেল অফ ইন্ডিয়া।
—  এম এস সুব্বুলক্শমী?
—  কে?
—  রহন দিজিয়ে, অাপ নেহি সমঝেঙ্গে। লতাজী কি বাত হো রহি হ্যায় কেয়া?
—  অফ কোর্স। লতা অার সচিন। পনেরো হাজার ক্লাবের মেম্বার দুজনেই।
—  পন্দ্রহ হজার…ও, তেন্ডুলকর রন বনায়ে হ্যাঁয় অাউর মঙ্গেশকর গানা গায়েঁ হ্যাঁয়?
—  এরা ভারতীয় অাইকন। এদেরকে অপমান করলে সমগ্র ভারতবর্ষের অপমান। জাতীয় পতাকার অপমান। সিয়াচেনে সেনাদলের অপমান।
—  হাঁ, ভাট সুনকে তন্ময় হোয়ে গেলে অ্যায়সা হি হোতা হ্যায়।
—  লোকটাকে জেলে পোরা উচিত।
—  ইগনোর করনা উসসে সিম্পল হ্যায়।
—  ইগনোর?! ইগনোর করবো? বলেছেন কী, এসব অফেন্সিভ কথাবার্তা ইগনোর করবো?
—  হাঁ। ইসমে প্রাবলিম কেয়া হ্যায়? কহনে দীজিয়ে উসে। ফ্রী কান্ট্রি হ্যায়, স্পীচ ভি ফ্রী হ্যায়।
—  না না এসব মেনে নেওয়া যায় না। অামি পিঅাইএল করবো।
—  পিঅাইএল না কোরে বেটার অাইপিএল দেখেন। কাম মে অায়েগা।
—  অাইপিএল? শেষ হয়ে গেছে না?
—  খতম হো গয়া? সো সুন?
—  অাইপিএল ছাড়ুন, এদিকে এই ইন্সাল্টের কী হবে? অামি অফেন্ডেড হয়েছি।
—  ইয়ে পোস্ট-অফেন্ডেড অ্যাকশান অাপ রঙদেতুমুঝে ব্রিগেড পর হি ছোড় দীজিয়ে না। অাপ শান্ত হোকে বইঠকে অাউর সারে কে সারে থার্ডক্লাস মীম বনাকে পেজ পে দীজিয়ে।
—  না না শান্ত হয়ে বসা যায় না। এই সোকল্ডের একটা বিহিত চাই।
—  ইয়ে সুভে সে অাপ সোকল্ড সোক্লড কর রহে হ্যাঁয়। হ্যায় কেয়া ইয়ে মামলা, বতাইয়ে জরা।
—  নিউ ইয়র্ক টাইম্স।
—  এনওয়াইটি। উমদা পেপার।
—  বলেছে লতা মঙ্গেশকর নাকি “সো-কল্ড সিঙ্গার”, তথাকথিত গায়িকা।
—  অ্যায়সা কেয়া?
—  মানে ঢ্যাঁট দেখছেন? থার্ড ওয়ার্লড কান্ট্রি তো, লোয়াল মিডল ইন্কাম গ্রুপ। কলোনিয়ালিজম যে কবে যাবে…এরাই তো সেই কার্টুন দিয়েছিলো।
—  উও মার্স মিশন ওয়ালা কার্টুন?
—  ওই যে, এলিট স্পেস ক্লাবে বসে চোখে মনোকেল গুঁজে ধনী দেশগুলি কাগজে মঙ্গলযানের খবর পড়ছে, অার একটি ভারতীয় চাষী বলদ নিয়ে সেখানে নক করছে। মানে যাকে বলে রেশিজমের চূড়ান্ত।
—  তো ইস বার কেয়া বোল রহে হ্যাঁয়? লতাজী সো-কল্ড সিঙ্গার হ্যাঁয়?
—  ভাবা যায়? যারা জাস্টিন বীবার লেডি গাগা কান্যে ওয়েস্ট এদেরকে নিয়ে লাফালাফি করে তারা নাকি লতা মঙ্গেশকরের মূল্য বিচার করছে। ছোঃ।
—  এক বাত ভুল রহে হ্যাঁয় ঘোসবাবু। ইন্ডিয়া মে ভি হানি সিং ভেরি পপুলার।
—  অাবার অ্যাড হোমিনেম করছেন?
—  দেখিয়ে ঘোসবাবু, সাট সাল পহলে হম কালোনি থে, ডিপেন্ডেন্ট থে। সাট সাল মে হমারা অাচিভমেন্ট উমদা হ্যায়। ইউএস ইউকে ইওরোপ হর জঘহ মেঁ ইন্ডিয়ান্স কাম কর রহে হ্যাঁয়, রহ রহে হ্যাঁয়, দেশ কা নাম রশান কর রহে হ্যাঁয়। তো ইসী লিয়ে সো-কল্ড ডেভেলাপড কান্ট্রি কে লোগ ইনসিকিয়োর ফীল কর রহে হ্যাঁয়। সোচ রহে হ্যাঁয় কি ইয়ে তো হ্যায় স্নেক চার্মার কা দেশ, ইসকি লোগ ইতনা কর দিঁয়ে? তো ইসী লিয়ে অ্যায়সা ইন্সাল্ট করকে অপনা সুপিরিওরিটি কায়ম রখনে কি ট্রাই কর রহে হ্যাঁয়। ইসকা জওয়াব দেনে কে লিয়ে দো তরকীব হ্যায়, এক ডিরেক্ট অাউর এক ইন্ডিরেক্ট।
—  ডিরেক্ট নিশ্চই প্রোটেস্ট করা। সুপ্রীম কোর্টে…
—  অরে ছোড়িয়ে কোর্ট-ফোর্ট। ইয়ে কোই খেল কি ময়দান থোড়ি হ্যায়, কি বড়া লড়কা মার লগায়ে অাউর অাপ রোতে রোতে ঘর যাকে কমপ্ল্যান পীতে পীতে কমপ্লেন করেঁ? সার্কাজম অাউর উইট, ঘোসবাবু। বেস্ট উয়েপন।
—  অার ইন্ডিরেক্ট?
—  কাম করকে। অাউর ভী বড়িয়া বড়িয়া অাচিভমেন্ট করকে কিলাস মে ফার্স্ট গার্ল ইয়া বয় বননা। সচিন কি তরহ, লতাজী কি তরহ।
—  হুঁঃ, নিজের ফাঁদে নিজেই পড়লেন। ক্লাসের ফার্স্ট বয়…
—  ইয়া গার্ল।
—  …ফার্স্ট গার্ল হওয়া মানে কী, মা-বাবা-মাষ্টারের বাধ্য সন্তান। গার্জেন তো সেই শাদা চামড়াই, তাই নয় কি?
—  কভী নেহী। সব লোগ এক হি কিলাস মে হ্যাঁয় ঘোসবাবু। টীচার মাস্টার উও সব হ্যাঁয়…
—  উপরওয়ালা?
—  নেচার, ঘোসবাবু, নেচার। অাউর সিলেবাস মে হ্যায় ইয়ে পুরা ইউনিভার্স।
—  এই তো সায়েন্সে চলে গেলেন। অার্ট হিউম্যানিটিজ ইকনমি কোথায় গেলো?
—  ইউনিভার্স, ঘোসবাবু, ইউনিভার্স। মতলব সব হ্যায় উসমে। এভরিথিং।
—  সে তো বুঝলুম। কিন্তু অামি যে অফেন্ডেড।
—  ঘোসবাবু, জো লোগ হর বাত পে অফেন্ডেড হোতে হ্যাঁয় উও অফেন ডেড হোতে হ্যাঁয়, মেন্টালি।
—  মানে? অামি মানসিক ভাবে মৃত?
—  অরে রাম রাম, হরগিজ নেহী। কোমা মে হ্যাঁয়, মরনা বাকি হ্যায়। বাই দ্য ওয়ে, নিউ ইয়র্ক টাইমস কি অার্টিকেল ম্যায় ভি পড়া হুঁ।
—  পড়েছেন? পড়েও অফেন্ডেড হননি? ভারতরত্ন গায়িকাকে “সো-কল্ড সিঙ্গার” বলেছে…
—  সো-কল্ড প্লেব্যাক সিঙ্গার।
—  অ্যাঁ?
—  অমরীকা মে “প্লেব্যাক সিঙ্গার” কি মতলব কিসিকো পতা নেহী হ্যায়। ইসী লিয়ে “সো-কল্ড প্লেব্যাক সিঙ্গার”, কিঁউকে হম লোগ হি উনকো প্লেব্যাক সিঙ্গার কহতে হ্যাঁয়, সিঙ্গার নহী।
—  গায়িকা বলি না? কী বলছেন কী? অামি…
—  …অফেন্ডেড হোনে কি পহলে টাইম দেখিয়ে, ওয়ান টুয়েন্টি। মতলব লাঞ্চটাইম। অাপকা ফেভারিট। খিচড়ি, সাথ মে অামলেট।
—  খিচুড়িডিমভাজা? কিন্তু অাজ তো বৃষ্টি নেই।
—  উসকে পহলে ফুচকা ভী হ্যায়।
—  লাঞ্চে ফুচকা?
—  অ্যাপেটাইজার।
—  হুম। গুড অাইডিয়া। অফেন্ডেড না হয় পরে হওয়া যাবে। খাওয়া মোর ইম্পর্ট্যান্ট।
—  পেট খুশ তো…?
—  মন ভী খুশ। চলুন, টু লাঞ্চ।
—  অাফটার ইউ ঘোসবাবু।

_________________________

#সোঘো, দুপুর একটা পঁচিশ, ভয়ানক খিদে পেয়েছে, পাঁপড় গোছের ভাট না খেয়ে প্রপার খাওয়াদাওয়া করবো, প্রমিস।

২ জুন, ২০১৬ সাল, তিলোত্তমা।

Advertisements

2 thoughts on “সো-কল্ড ভাট

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s